মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

বার্তা

“বার্তা”

 

সৌন্দর্য মন্ডিত রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার জুরাছড়ি একটি অত্যন্ত দূর্গম একটি উপজেলা। ৬০৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এ উপজেলায় প্রায় ২৯০০০ জন জনগণ বসবাস করেন। জেলা সদর থেকে দূরত্ব প্রায় ৫৭ কিলোমিটার। এক সময় এ উপজেলাটি পার্শ্ববর্তী বরকল উপজেলার একটি ইউনিয়ন ছিল। ১৯৮৩ সালের ২৫ জুলাই সনে এটি উপজেলায় উন্নীত হয়।চাকমা শব্দ ‘জুরা’ অর্থ ‘ঠান্ডা’ বা শীতল এবং ‘ছড়ি’ অর্থ ‘পানির ঝর্ণা’ বা ‘ঝিরি’। ঠান্ডা পানির ঝর্ণা বা ঝিরি প্রবাহিত হওয়ায় স্থানটির নাম হয়েছে জুরাছড়ি।জেলা সদরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম হলো নৌপথ।সড়ক পথে যোগাযোগ নেই বললেই চলে। উপজেলার বাঙ্গালী জনগোষ্ঠী খুবই নগন্য।উপজেলাই কোন শিল্প কারখানা গড়ে উঠেনি। প্রধানত জুমচাষ করে এখানকার মানুষ জীবিকা নির্বাহ করেন। পাহাড়ী জনগোষ্ঠীর মধ্যে অধিকাংশ চাকমা সম্প্রদায়ভুক্ত। সামান্য তঞ্চঙ্গ্যা ও পাংখো সম্প্রদায়ের বসবাস লক্ষ করা যায়।বর্ষাকালে এ উপেজলার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সুন্দরভাবে ফুটে উঠে। এখানে দেশীয় ফল যথা আনারস, পেপে, কলা স্থানীয় ভাবে বিভিন্ন শস্য এবং লেকে প্রচুর মাছ পাওয়া যায়।

 

উপজেলাটির বর্তমান যুগের সীমিত সুযোগ সুবিধা থাকা সত্তেও সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচী যথা "ডিজিটাল বাংলাদেশ" বিনির্মানে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

 

 

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

জুরাছড়ি, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা।